এগুলো বলে তারা পৈশাচিক আনন্দ পায়: দীঘি

প্রার্থনা ফারদিন দীঘি শিশুশিল্পী হিসেবেই দেশজুড়ে জনপ্রিয়তা পেয়েছিলেন। সেই দীঘি এখন পুরোদস্তুর নায়িকা। এরই মধ্যে বড় পর্দায় তার নায়িকাযাত্রা হয়ে গেছে। তবে নানা সময় ওজন নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে বুলিংয়ের শিকার হতে হয় দীঘিকে।

বিষয়টি নিয়ে এতদিন চুপ থাকলেও কিছুদিন আগে মুখ খোলেন এই নায়িকা। ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে ‘চাচ্চু’ খ্যাত তারকা লেখেন, ‘সবাই আমার ওজন নিয়ে খুব চিন্তিত! তারা আসলে ভুলে গেছেন আমি একজন অভিনয়শিল্পী, যার কাজ মূলত অভিনয় করা; জিম প্রশিক্ষক না।’

নিজের ওজন নিয়ে মানুষের কটু কথা প্রসঙ্গে এবার ক্যামেরার সামনে কথা বলেছেন দীঘি। তার ভাষ্য, ‘কয়েক বছর ধরেই শুনছিলাম আমি ফিটনেট সচেতন না। যেটা কিনা সবসময় হয়, সবসময় বলে।

আমি সেটা করার জন্য আমার সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি। তারপরও কিছু মানুষ আছে, কানের সামনে এসে এগুলো বলে তারা পৈশাচিক আনন্দ পায়। এই যে কটু কথাগুলো কিংবা একজনকে ছোট করাটা এই জিনিসটা আমার একদমই পছন্দ না।’

একজন অভিনেত্রী হিসেবে সবার আগে তার কাজকে মূল্যায়ন করার কথা জানিয়ে দীঘি বলেন, ‘বরাবরই বলে আসছি আমি একজন অভিনেত্রী। আমার কাজটাই হচ্ছে প্রথমত অভিনয় করা। বাদ বাকিগুলো সব পরে দেখবেন। আমি অভিনয় পারি কিনা সেটা দিয়ে আগে আমাকে বিচার করবেন, যদি বিচার করতেই হয়।’

শিশুশিল্পী হিসেবে জাতীয় পুরস্কার পাওয়া এই অভিনেত্রী আরও যোগ করেন, ‘একটা সময় মনে হলো একা একা বলে চুপচাপ থেকে জিনিসটা সবার কানে যাচ্ছে না। যার জন্য পরে মনে হলো একটা স্ট্যাটাস দিয়ে দেখি কী হয়।

এই জিনিসটা সবার জানা উচিত, সবার বোঝা উচিত। কারণ এখন পৃথবী অনেক এগিয়ে গিয়েছে। এখনো যদি আমি আগের চিন্তায় থাকি, নায়িকা মানে স্লিম ফিগার, নায়িকা মানে জিরো ফিগার, তাছাড়া নায়িকা হবে না। এই জিনিসটা থেকে বের হওয়া উচিত।’

উল্লেখ্য, পূর্ণাঙ্গ নায়িকা হিসেবে গত বছর দীঘির অভিষেক হয়। তার প্রথম সিনেমা ‘তুমি আছো তুমি নেই’। এরপর তাকে দেখা গেছে ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়াভাই’ সিনেমায়। কিছুদিন আগে ওটিটিতে তার অভিষেক হয়েছে ‘শেষ চিঠি’ নামের একটি ওয়েব ফিল্মের মাধ্যমে। যেখানে তার নায়ক ইয়াশ রোহান। এতে দীঘির অভিনয় প্রশংসিত হয়েছে।

 

Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ