পরী যা মন চায় করুক, আমাদের সম্পর্ক আর টিকছে না: রাজ

ঢাকাই ছবির আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমণি তার স্বামী শরিফুল রাজের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ তুলেছেন। মূল অভিযোগ হলো, রাজ তাকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করেন, তাকে একাধিকবার মারধরও করেছেন। এছাড়া পরীমণি বলেছেন, ‘রাজ এখন আমার প্রাক্তন। রাজকে আমি ছুটি দিলাম।’

গত কয়েকদিনে স্বামী রাজকে নিয়ে পরীমণি ফেসবুকে একের পর এক পোস্ট দিয়ে তাকে ‘কাঠগড়ায়’ দাঁড় করালেও রাজ থেকেছেন নিশ্চুপ। এবার রাজ এ বিষয়ে মুখ খুললেন।

সোমবার সমকালকে বললেন, ‘চুপচাপ থাকতে চাই। পরীর এসব আমি আটকাতে বা থামাতেও চাই না। পরীর সবকিছু করার ও বলার অধিকার আছে। পরী যা করছে বা তার মন যা চায় করুক, হয়তো তার সে অধিকার আছে।’

তবে রাজ চুপ থাকতে চাইলেও পীর সঙ্গে সম্পর্ক যে আর টিকছে না সেটি স্পষ্ট করেন। স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক জোড়া লাগবে কিনা, এমন প্রশ্নের উত্তরে রাজ সমকালকে বলেন, ‘না, আর হবে না।’

বছরের প্রথম দিনই পরীমণি ফেসবুকে রাজের বিরুদ্ধে গায়ে হাত তোলার অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে রাজ এড়িয়ে যান। তবে শুধু বলেন, ‘আমি এখন চুপচাপ আছি, কিছু বলতে চাইছি না। এই পরিস্থিতিতে আমার এখন একা থাকা দরকার। পরে এসব ব্যাপারে কথা বলব।’

এর আগে পরীমণি যখন নানা অভিযোগ তুলে স্বামী-স্ত্রী আলাদা হয়ে যাওয়ার কথা জানান, তখন ফেসবুকে ছবি দিয়ে ছেলের জন্য শুভ কামনা জানান শরিফুল রাজ।

ওই সময় ফেসবুকে রাজ লিখেন— ‘প্রিয় পুত্র আমার, এ বছর তো অবশ্যই, সামনের সময়টাও দুর্দান্ত কাটুক তোমার। আগামী বছরগুলোতে তোমার সুস্বাস্থ্য কামনা করছি। আমার হৃদয় সবসময় তোমার জন্য ভালোবাসায় পূর্ণ। তুমি যত বড় এবং শক্তিশালী হও না কেন! তুমি কখনই তোমার প্রতি আমার ভালোবাসাকে ছাড়িয়ে যেতে পারবে না— হ্যাপি নিউ ইয়ার।’

এর আগে রাজ-পরীর সাংসারিক সংকট নিয়ে নানা তথ্য সামনে এলেও বিয়েবিচ্ছেদ নিয়ে তেমন কোনো ইঙ্গিত ছিল না। তবে গত ৩০ ডিসেম্বর রাত থেকে রাজ-পরী দম্পতির বিচ্ছেদের কথা ছড়াতে থাকে।

নতুন বছরের প্রথম প্রহরে নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এক পোস্টে বিছানা-বালিশে ছোপ ছোপ রক্তের দাগওয়ালা দুটি ছবি পোস্ট করে ইংরেজি নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানান নায়িকা পরীমণি। শিগগিরই সংবাদ সম্মেলনে আসার কথাও ঘোষণা দেন; কিন্তু পরে আরেক পোস্টে সংবাদ সম্মেলন করার অবস্থান থেকে সরে আসার কথা জানান পরীমণি।

Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ