স্ত্রীকে নির্যাতন করে ফেঁসে যাচ্ছেন ক্রিকেটার আল আমিন

বাংলাদেশি ক্রিকেটার আল আমিন হোসেনের নামে অভিযোগ দিতে থানায় গিয়েছেন তারই স্ত্রী ইসরাত জাহান। এই পেসারের বিরুদ্ধে মূলত নারী নির্যাতনের অভিযোগ এনেছেন তার স্ত্রী।

দীর্ঘদিন ধরে ক্রিকেটার স্বামী আল আমিনের হাতে অত্যাচার হওয়ায় থানার আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়েছেন, এমনটাই জানিয়েছেন তিনি।

এই পেসারের নামে মামলা না করলেও জিডি করে অভিযোগ জানিয়ে এসেছেন আল আমিনের স্ত্রী। মিরপুর মডেল থানায় আজ (১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে আল আমিনের নামে অভিযোগ করতে যান এই ক্রিকেটারের স্ত্রী।

এই সময় গণমাধ্যমে আল আমিনের স্ত্রী বলেন, ‘তিনি অত্যাচার করেন, আমরা বাধ্য হয়ে থানায় আসছি। দীর্ঘদিন যাবত তিনি আমাকে মারধর করেন।’

আজ থানায় অভিযোগ দিতে আসার কারণ জানিয়ে এই ক্রিকেটারের স্ত্রী বলেন, ‘ইতোমধ্যে আমাকে ঘর থেকে বের করে দিচ্ছে। দুটি সন্তান নিয়ে আমি কোথায় যাব।’

কেবল নারী নির্যাতন নয় এই ক্রিকেটারকে নিয়ে আরও বিস্ফোরক তথ্য জানিয়েছেন তার স্ত্রী। তিনি জানিয়েছেন, আল আমিন অন্য একটি মেয়ের সঙ্গে থাকার জন্য বের করে দিতে চাইছেন তাদের।

এই ক্রিকেটারের স্ত্রীর ভাষ্যে, ‘আমাদের অভিযোগ হচ্ছে, সে আরেকটা মেয়ের সাথে থাকে বলে আমাদের ঘর থেকে বের করে দিচ্ছে। গত ২৫ আগস্ট সে বাসায় এসে মারধর করে ঘর থেকে বের করে দিতে চাইছে।

আমি শুনেছি সে অন্য একজনকে বিয়ে করেছে। কিন্তু আমি এখনো কোনো প্রমাণ পাইনি। কাবিননামাও দেখিনি।’

এই ক্রিকেটারের নির্যাতনের কারণে বাধ্য হয়ে হাসপাতালেও ভর্তি হতে হয়েছিল তাকে। তবুও এই আল আমিনের সংসার করে যেতে চান জানিয়ে এই ক্রিকেটারের স্ত্রী আরও বলেন,

‘আমি এই দুই সন্তান নিয়ে কোথায় যাবো। আমি অভিযোগ জানিয়েছি, পুলিশ তদন্ত করে সিদ্ধান্ত নেবে। আমি আমার ছেলেদের ভালো করে মানুষ করতে চাই।’

এর আগেও গায়ে হাত তোলায় এই ক্রিকেটারের নামে জিডি করেছিলেন বলে জানিয়েছেন এই ক্রিকেটারের স্ত্রী। এই দম্পতির সংসারে দুটি পুত্রসন্তান রয়েছে।

আল আমিন ২০২০ সালে সর্বশেষ খেলেছেন জাতীয় দলে। এর আগেও শৃংখলা ভঙ্গের অভিযোগ উঠেছিল এই পেসারের বিরুদ্ধে। এ কারণে ২০১৫ সালের অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপ থেকে দেশেও ফেরত পাঠানো হয় তাকে।

Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ