২৭ বছরের পথচলায় ইতি টানলেন মীর

কলকাতার রেডিও জগতে সবচেয়ে জনপ্রিয় নাম মীর আফসার আলী। রেডিও জকি হিসেবে তার মতো সাফল্য খুব কম মানুষই পেয়েছেন। রেডিও মির্চিতে তার কণ্ঠস্বর দীর্ঘ দুই যুগের বেশি সময় ধরে শুনছে শ্রোতারা। এরপরও মুগ্ধতায় কমতি নেই।

এবার সেই পথচলায় ছেদ। রেডিও মির্চির সঙ্গে দীর্ঘ ২৭ বছরের সম্পর্কের ইতি টানলেন মীর। প্রতিষ্ঠানটি ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। শুক্রবার (১ জুলাই) ভক্তদের মন খারাপ করা এই খবর দেন মীর।

ফেসবুকে রেডিও স্টেশনে তোলা প্রথম ছবি শেয়ার দিয়ে মীর লিখেছেন, ‘১৯৯৪ সালের ৬ আগস্ট থেকে ২০২২ সালের ৩০ জুন। রেডিওর সঙ্গে এই ২৭ বছর সক্রিয়ভাবে যুক্ত ছিলাম। এই ছবিটা আকাশবাণীতে প্রথম দিনের। আমায় শোনার জন্য সবাইকে ভালোবাসা, অভিবাদন।’

মীর অবশ্য জানিয়েছেন, তিনি রেডিও ছাড়ছেন না। কেবল মির্চি ছেড়েছেন। এজন্য তার খারাপও লাগছে। তবে শিগগিরই নতুন সুখবর দেবেন বলে জানিয়েছেন এই তারকা।

মীরের আকস্মিক এই ঘোষণায় হতবাক ভক্তরা। হাজার হাজার অনুরাগী তার পোস্টে মন্তব্য করছেন, তাদের মন খারাপের কথা জানাচ্ছেন। এমনকি কয়েকজন রেডিও জকিও অবাক হয়েছেন। কেননা তারা মীরকে দেখেই এই ভুবনে পা রেখেছেন।

রূপম মুখার্জি নামে একজন লিখেছেন, ‘সেকি! ভোরবেলা কাজে বেরোতে হয়, জগন্নাথ বসুর কালীকথার পরই সকালম্যান মীরের অপেক্ষায় থাকি! এই রাজ্য থেকে ওই রাজ্য ড্রাইভ করে যাওয়ার সময়েও মনোটনি কাটাতে পেন ড্রাইভে লোড করে নিয়েছি কয়েকটা সানডে সাসপেন্স। একটু দূরে গেলেই তো আর রেডিও কাজ করে না। এবার কী হবে! আপনি মশাই এসে আমায় গল্প শুনিয়ে যাবেন।’

সুস্মিতা নামে এক ভক্ত লিখেছেন, ‘মেনে নিতে কষ্ট হচ্ছে।’ মৌমিতা রায় লিখেছেন, ‘জাস্ট মানতে পারছি না। সানডে সাসপেন্স, শার্লক হোমসের কি হবে! ৯৮.৩ শতাংশ ভালোবাসাটা তো তোমার জন্যই ছিল আর থাকবেও, ভালো থেকো মীরদা।’

কারোর মন্তব্যেরই জবাব দেননি মীর। সবাই অধীর আগ্রহে তাই অপেক্ষা করছেন, নতুন কী খবর দেন সকালম্যান, সেটা জানার জন্য।

Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ