যুক্তরাষ্ট্রকে উড়িয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই সেমিফাইনালে বাংলাদেশ

তাড়া করতে নেমে ১২ রানে ৩ উইকেট হারানোর পর ৯১ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি হলো চতুর্থ উইকেটে। যুক্তরাষ্ট্র অধিনায়ক সিন্ধু সিহার্শ অপরাজিত থাকলেন ৭১ বলে ৭৪ রানে।

তারপরও ২০ ওভার ব্যাটিং করে যুক্তরাষ্ট্রের মেয়েরা ১০৩ রানের বেশি তুলতে পারলেন না। ৫৫ রানের বড় জয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই মেয়েদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের সেমিফাইনালে চলে গেল বাংলাদেশ।

আয়ারল্যান্ড, স্কটল্যান্ডের পর আজ যুক্তরাষ্ট্রকেও অনায়াসেই হারিয়েছে নিগার সুলতানার দল। আবুধাবিতে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে মুর্শিদা খাতুনের ৬৪ বলে অপরাজিত ৭৭ ও নিগারের ৪০ বলে ৫৬ রানের অপরাজিত ইনিংসে ১৫৮ রানে করে বাংলাদেশ। টি-টোয়েন্টিতে এটি বাংলাদেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্কোর, ২০১৯ সালে মালদ্বীপের বিপক্ষে তারা করেছিল ২৫৫ রান।

চতুর্থ ওভারে পেসার স্নিগ্ধা পালের বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন ১৭ বলে ১০ রান করা শামীমা সুলতানা। এরপরই জুটি বাঁধেন মুর্শিদা ও নিগার, ২০ ওভার শেষেও যেটি ভাঙেনি। দুজনের জুটিতে ৯৮ বলে ওঠে ১৩৮ রান। এটিও যে কোনো উইকেটে বাংলাদেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ।

মুর্শিদা অর্ধশতক পূর্ণ করেন ৪০ বলে, ইনিংসে মারেন ৯টি ছয়। আগের দুই ম্যাচে ইনিংস বড় করতে না পারলেও আজ জ্বলে ওঠেন তিনি। অধিনায়ক নিগার অবশ্য টেনে আনেন দারুণ ফর্মটাই। তিন ম্যাচের মধ্যে এটি দ্বিতীয় অর্ধশতক তাঁর। মাইলফলকে যেতে আজ বাংলাদেশ অধিনায়কের লাগে ৩৯ বল। ৬টি চারের সঙ্গে ছিল ইনিংসের শেষ বলে মারা ছক্কা।

রানতাড়ায় প্রথম ওভারেই উইকেট হারায় যুক্তরাষ্ট্র, অভিজ্ঞ স্পিনার সালমা খাতুনের বলে বোল্ড হন স্নিগ্ধা। চতুর্থ ওভারে দিশা ধিংরা হন রানআউট, পরের ওভারে নাহিদা আক্তারের শিকার আনিকা কোলান। ১২ রানে ৩ উইকেট হারানো যুক্তরাষ্ট্র এরপর করেছে সতর্ক ব্যাটিং, তবে বাংলাদেশের স্কোর নাগালের বাইরেই থেকে গেছে তাদের।

সিহার্শ তাঁর ৭৪ রানের অপরাজিত ইনিংসে মেরেছেন ৮টি চার। তৃতীয় উইকেটে তাঁর সঙ্গী লিসা রামজিত ২৬ রানের অপরাজিত ইনিংসের পথে খেলেন ৪১ বল। সালমা ৩ ওভারে দেন মাত্র ১২ রান, ৪ ওভারে ১৮ রান দেন সানজিদা আক্তার।

২৩ সেপ্টেম্বর আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় সেমিফাইনালে খেলবে বাংলাদেশ। তাদের প্রতিপক্ষ বি গ্রুপের গ্রুপ রানার্সআপ। কাগজে-কলমে যেটি হওয়ার সম্ভাবনা আছে তিন দলের—জিম্বাবুয়ে, থাইল্যান্ড ও পাপুয়া নিউগিনি।

টুর্নামেন্টের ফাইনালে খেলা দুটি দল সুযোগ পাবে আগামী বছর দক্ষিণ আফ্রিকায় হতে যাওয়া বিশ্বকাপে।

Related articles

Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বাধিক পঠিত